কেনো পিএইচপি শিখবো? পিএইচপির গুরুত্ব এবং প্রয়জনীয়তা

পিএইচপি
Spread the love

Rasmus Lerdorf ১৯৯৪ সালে পিএইচপি তৈরি করেন। তখন এর নাম ছিল – Personal Home Page Tools (PHP) তারপর ’৯৫ সালের জুনে রাসমুস লারডর্ফ PHP tools এর সোর্সকোড সবার জন্য উন্মুক্ত করেন। প্রথম দিকে প্রোগ্রামিং গুরুদের কাছে PHP তেমন পাত্তা পায়নি।

কারন PHP তখন প্রসিডিউর ওরিয়েন্টেড ল্যাংগুয়েজ ছিল। কিন্তু যখন PHP তে অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড (OOP) নিয়ে আসা হলো তখন থেকে প্রোগ্রামার, ডেভেলাপার এর দিকে নজর দেওয়া শুরু করলো । বর্তমানে PHP একটি পূর্ণাঙ্গ অবজেক্ট অরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ।

পিএইচপি কেন শিখবেন এর ৬টি কারনঃ

-> সহজে শেখা যায়ঃ প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ শিখতে গিয়ে প্রথম দিকে অনেকেই ঝরে পরে এটি যেমন একটা পরিচিত ঘটনা তেমনই এর মাঝে কিছু কারনও রয়েছে। ‘কোডিং এর জটিলতা’ একটি কারন

তাই PHP এর মধ্যে কিছু ভিন্নতা নিয়ে এসেছে। PHP কোড গুলো শেখা খুবই সহজ, আর এর জটিলতা নেই বললেই চলে। উদাহরন হিসেবে দেখা যাক, সি প্রোগ্রামিং এর একটি ব্যাসিক প্রোগ্রাম!

#include<stdio.h>
void main()
{
    Printf("Hello World");
}

আর যদি আমরা এই একই প্রোগ্রাম PHP তে করি ,

<?php 
   echo"Hello World";
?>

তাহলে এই একটি লাইনই যথেষ্ট।

এছাড়া PHP তে প্রায় হাজারের বেশী বিল্ট-ইন ফাংশন রয়েছে, যাতে করে অনেক জটিল কাজ ডেভেলাপার একটি ফাংশন ব্যবহার করেই সমাধান করতে পারে। এ সহজতার কারনে PHP খুব তাড়াতাড়ি শেখা যায়।

-> রান, কম্পাইল ও আউটপুটঃ সাধারনত আমরা যখন প্রোগ্রামিং নিয়ে কাজ করি তখন দেখা যায়, কোড লেখা ও রান করার জন্য বেশ ঝামেলার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। কিন্তু PHP কোন ঝামেলা ছাড়াই যেকোনো এডিটরে লিখে সার্ভারে রেখে যেকোনো ব্রাউজারে রান করানো যায়।

-> বড়সড় কমিউনিটিঃ PHP’র কমিউনিটি অনেক বড়। তাই যে কোন বড় সমস্যার সমাধান অল্প সময়ে কমিউনিটির মাধ্যমে করা যায়। Stack Overflow তে তৃতীয় বৃহৎ কমিউনিটি হিসেবে এর স্থান রয়েছে। PHP এর তৈরি করা বহু প্রজেক্ট GitHub – এ পাওয়া যায়।

-> প্রজেক্ট তৈরির সুবিধাঃ PHP কোড Maintenance করা খুব সহজ,বহু শক্তিশালী ফ্রেমওয়ার্ক রয়েছে তাই অল্প সময়ে সহজেই PHP দিয়ে বড় বড় প্রজেক্ট তৈরি করা যায়।

-> জনপ্রিয়তাঃ Back End বা (সার্ভার সাইড) ওয়েব ডেভেলাপমেন্টে এর জন্য পিএইচপি অনেক আগে থেকেই বেশ জনপ্রিয়। Facebook, Yahoo, Wikipedia, WordPress এর মতো বড় বড় প্রতিষ্টান তাদের মূল ওয়েবসাইট সহ বিভিন্ন কাজে PHP ব্যবহার করে আসছে। এছাড়া বর্তমানে ওয়েব টেকনোলজির ৭৪% জায়গা পিএইচপির দখলে রয়েছে।

> ক্যারিয়ার হিসেবে PHP’র এখন বেশ চাহিদা রয়েছে। যারা নিজেকে ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে দেখতে চান, তারা খুব সহজে অল্প সময়ে একজন PHP ডেভেলপার হতে পারেন। বর্তমানে PHP’র ফ্রেমওয়ার্কগুলোর মধ্যে অন্যতম লারাভেল(Laravel) এর কথা না বললেই নয় এর ব্যবহার ও চাহিদার ব্যাপকতা; ক্যারিয়ারে পিএইচপির সুনিশ্চিত ভবিষ্যতের কথা মনে করিয়ে দেয়।


পিএইচপি সম্পর্কে সংক্ষেপে কিছু চিত্র আপনাদের মাঝে তুলে ধরলাম! নতুন ডেভেলাপারদের অনেক সময় কোনটা শিখবো নিয়ে চিন্তিত থাকতে দেখা যায়, তারই পরিপ্রেক্ষিতে আমার এই লেখাটি আশা করি কাজে আসবে।

ক্রেডিটঃ প্রযুক্তির অভিযাত্রি

আপনার মন্তব্য লিখুন